Bangla Runner

ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০২৪ | বাংলা

শিরোনাম

রম্য বিতর্ক: ‘কুরবানীতে ভাই আমি ছাড়া উপায় নাই!’ সনাতনী বিতর্কের নিয়মকানুন গ্রীষ্ম, বর্ষা না বসন্ত কোন ঋতু সেরা?  বিভিন্ন পত্রিকায় লেখা পাঠানোর ই-মেইল বিশ্বের সবচেয়ে দামি ৫ মসলা Important Quotations from Different Disciplines স্যার এ এফ রহমান: এক মহান শিক্ষকের গল্প ছয় সন্তানকে উচ্চ শিক্ষত করে সফল জননী নাজমা খানম ‘সুলতানার স্বপ্ন’ সাহিত্যকর্মটি কি নারীবাদী রচনা? কম্পিউটারের কিছু শর্টকাট
Home / ক্যাম্পাস

নমুনা প্রস্তাব

বিতর্কের বিষয় ব্যাংক

রানার ডেস্ক
বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২৩ Print


সারা দেশে বিতর্ক বর্তমানে একটি জনপ্রিয় শিল্প। স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের গণ্ডি পেরিয়ে এখন বিভিন্ন স্থানে গড়ে উঠছে এলাকা ভিত্তিক বিতর্ক সংগঠন। টেলিভিশন থেকে শুরু করে ফেসবুক, ইউটিউবসহ সোশাল মিডিয়াগুলোতেও এখন এক জনপ্রিয় ধারার নাম বিতর্ক। বিতর্কপ্রেমী মানুষের জন্য আমাদের এই বিশেষ সংগ্রহ— বিষয় ব্যাংক। এখানে অর্থনীতিকে প্রধান্য দিয়ে বিতর্কের বেশ কিছু প্রস্তাবনা তুলে ধরা হলো।

০১. সিন্ডিকেটই দ্রব্যমূল্য ঊর্ধ্বগতির মূল কারণ।
০২. স্বদেশী পণ্যের ব্যবহার বৃদ্ধিতে মানহীনতা নয় মানসিকতাই প্রধান অন্তরায়।
০৩. বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা দরিদ্র দেশগুলোর অর্থনীতিকে দুর্বল করছে।
০৪. মানহীনতায় নয় মানসিকতায়ই স্বদেশী পণ্য আজ অবহেলিত।
০৫. চীনের মুক্তবাজার সাফল্য আমাদের অনুকরণীয় নয়।

০৬. নারী শব্দটি নারী উন্নয়নের প্রধান বাঁধা। 
০৭. বাজার অর্থনীতিতে নারী জাগরণ প্রকারান্তে হরণ ।
০৮. পণ্যের বিজ্ঞাপনে পণ্য নারী বাজার অর্থনীতির উপহার।

০৯. আমরা যতটা অর্থনৈতিক সঙ্কটে তার চেয়ে বেশি সংকীর্ণতায়।
১০. সম্পদের অপ্রতুলতা নয়, দুর্নীতিই আমাদের উন্নয়নের প্রধান প্রতিবন্ধকতা । 
১১. মধ্যপ্রাচ্য স্থিতিশীল হওয়ার পথে।
১২. সম্পদের অভাব নয়, অতিরিক্ত জনসংখ্যাই আমাদের প্রধান সমস্যা।
১৩. দুর্বল শিল্পায়নের জন্য আমাদের অর্থনৈতিক সংকটই মূলত দায়ী।
১৪. বিশ্বায়ন জাতীয় উন্নয়ন পরিপন্থী।
১৫. স্বল্পোন্নত দেশগুলোর জন্য বিশ্বায়ন আদতে কোন সুফল বয়ে আনতে পারবে না।

১৬. অর্থনীতিই সময়কে নিয়ন্ত্রণ করে।
১৭. অর্থনীতিই সমাজকে নিয়ন্ত্রণ করে।
১৮. অর্থনৈতিক মুক্তিই সন্ত্রাস নির্মূলের উপায়।
১৯. অর্থনৈতিক যুদ্ধ সামরিক যুদ্ধের চেয়ে ভয়াবহ।
২০. ক্রমবর্ধমান সামাজিক সন্ত্রাসের কারণ রাজনৈতিক নয় অর্থনৈতিক।
২১. অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠার জন্য গণতন্ত্রের চর্চা মুখ্য নয়।

২২. অর্থনৈতিক শৃঙ্খল মননশীলতা বিকাশের পথে অন্তরায়।
২৩. সকল সংগ্রামের মূল কারণ অর্থনীতিতে নিহিত।

২৪. পরনির্ভর অর্থনীতিই টেকসই উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করছে।
২৫. ক্ষুদ্রঋণ গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর জন্য সুফলের চেয়ে অধিক কুফল বয়ে এনেছে।
২৬. গ্যাস রপ্তানী আমাদের অর্থনীতিতে ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে।

স্বাস্থ্য:
০১. অপর্যাপ্ত নয় বরং বাজেটের সঠিক ব্যবহারের অভাব-ই দেশের স্বাস্থ্য খাতের দূরাবস্থার মূল কারণ।
০২. বাজেটে বরাদ্ধ বৃদ্ধি নয়, বরং জনসচেতনতাই পারে সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে ।
০৩. আগামির সংকট ক্ষুধার নয়, সুস্বাস্থ্যের।
০৪. তৃত্বীয় বিশ্বের অধিক জনসংখ্যাই স্বাস্থ্য সমস্যার মুল কারণ।
০৫. ঔষধ নির্ভরশীলতা নয় বরং জনসচেতনতাই পারে সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে।

পরিবেশ:
০১. কার্বণ নিঃসরণই নগরীর পরিবেশ দূষণের জন্য দায়ী।
০২. শিল্পোন্নত বিশ্বের আগ্রাসী মনোভাবই পরিবেশ বিপর্যয়ের প্রধান করাণ।
০৩. অপরিকল্পিত নগরায়নই পরিবেশের স্বাভাবিক চক্র বিনষ্ট করছে।
০৪. পরিবেশ সংরক্ষণে প্রতিক্রিয়ামূলক পদক্ষেপ নয় বরং সতর্কতামূলক পদক্ষেপ বেশি জরুরী।
০৫. তৃতীয় বিশ্বের জনসংখ্যাই পরিবেশ বিপর্যয়ের জন্য দায়ী ।
০৬. ভারসাম্যহীন পরিবেশই সৃষ্টি করে ভারসাম্যহীন অর্থনীতি ।
০৭. খাদ্যে বিষক্রিয়া অপরিকল্পিত নগরায়নের ফসল ।
০৮. পরিবেশ দূষণই জাতীয় অগ্রগতির পথে প্রধান অন্তরায়।

তথ্য ও প্রযুক্তি:
০১. লাগসই প্রযুক্তির চেয়ে টেকসই প্রযুক্তিই আমাদের অধিক প্রয়োজন
০২. কপিরাইট আইনের দুর্বলতাই সফটওয়্যার শিল্প বিকাশের প্রধান বাঁধা।
০৩. দারিদ্র্য বিমোচন নয়, তথ্যপ্রযুক্তির উত্তরণই এই শতকের প্রধান চ্যালেঞ্জ।
০৪. লাগসই প্রযুক্তি উদ্ভাবন ব্যতীত জাতীয় উন্নয়নের চিন্তা অসম্ভব।
০৫. এই মুহূর্তে প্রযুক্তির অধিক ব্যবহারই অর্থনৈতিক মুক্তি দিতে পারে।
০৬. দক্ষ জনশক্তি নয় বরং সক্ষম উদ্যোক্তার অভাবেই তথ্যপ্রযুক্তি খাতে আমরা পশ্চাৎপদ।
০৭. তথ্যপ্রযুক্তিই বাংলাদেশের একমাত্র অর্থনৈতিক সম্ভাবনা।
০৮. তৃতীয় বিশ্বের অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য তথ্যপ্রযুক্তির উন্নয়ন অপরিহার্য।
০৯. প্রযুক্তির বাজারে আধিপত্যই বর্তমানে উন্নতির মূল মানদণ্ড।
১০. প্রযুক্তি নির্ভর শিক্ষা ব্যবস্থাই কর্মসংস্থানের নিশ্চয়তা দিতে পারে।

খাদ্য নিরাপত্তা:
০১. ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যা বৃদ্ধিই খাদ্য নিরাপত্তার প্রধান হুমকি।
০২. খাদ্য নিরাপত্তা হীনতা বিশ্বরাজনীতিরই ফলাফল।
০৩. শুধু মাত্র সঠিক বণ্টন ব্যবস্থাই খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারে।
০৪. জনসচেতনতাই পারে পুষ্টি হীনতা দূর করতে।
০৫. বহুমূখী কৃষি উৎপাদনই কৃষকের জীবনযাত্রার মান বৃদ্ধি করতে পারে।
০৬. দরিদ্রতা দূরিকরণ নয় পরিবেশ রক্ষাই এই শতকের বড় চেলেঞ্জ।
০৭. অধিক উৎপদনই পারে দ্রব্যমূল্যের উর্ধগতি নিয়ন্ত্রন করতে।
০৮. খাদ্যের সমণ্টন নিশ্চিত করা গেলেই খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে।
০৯. জমিতে কৃষকের অধিকার প্রতিষ্ঠাই খাদ্যে স্বয়ং সম্পূর্নতা দিতে পারে।
১০. শিল্পায়ন কৃষিকে হুমকির মুখে ঠেলে দিচ্ছে।
১১. উৎপাদন ঘাটতি নয়, অধিক মুনাফার লোভই খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করার পথে বড় বাঁধা।
১২. সুপেয় পানির সংকট পৃথিবীকে আর একটি বিশ্ব যুদ্ধের দিকে ঠেলে দিবে।

শিক্ষা:

বর্তমান শিক্ষা কারিকুলাম স্মার্ট বাংলাদেশ বিণির্মানে অন্তরায়।
নতুন শিক্ষা কারিকুলামই গড়তে পারে স্মার্ট বাংলাদেশ।
কার্যকর শ্রেণী পাঠদানে প্রযুক্তির ব্যবহারই একমাত্র পন্থা।

আরও পড়ুন আপনার মতামত লিখুন

© Copyright -Bangla Runner 2024 | All Right Reserved |

Design & Developed By Web Master Shawon