Bangla Runner

ঢাকা , বুধবার, ২২ মে, ২০২৪ | বাংলা

শিরোনাম

সনাতনী বিতর্কের নিয়মকানুন গ্রীষ্ম, বর্ষা না বসন্ত কোন ঋতু সেরা?  বিভিন্ন পত্রিকায় লেখা পাঠানোর ই-মেইল বিশ্বের সবচেয়ে দামি ৫ মসলা Important Quotations from Different Disciplines স্যার এ এফ রহমান: এক মহান শিক্ষকের গল্প ছয় সন্তানকে উচ্চ শিক্ষত করে সফল জননী নাজমা খানম ‘সুলতানার স্বপ্ন’ সাহিত্যকর্মটি কি নারীবাদী রচনা? কম্পিউটারের কিছু শর্টকাট ভালো চাইলে সূর্য ওঠার সঙ্গে সঙ্গে দৌড়াতে শুরু করুন
Home / উক্তি

ছয় সন্তানকে উচ্চ শিক্ষত করে সফল জননী নাজমা খানম

নিজস্ব প্রতিবেদক
শনিবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০২৩ Print


80K

‘জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ’ কার্যক্রমের আওতায় শরীয়তপুর জেলা ও শরীয়তপুর সদর উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ জয়িতা পুরস্কার পেয়েছেন নাজমা খানম। ‘সফল জননী নারী’ ক্যাটাগরিতে এ বছর তিনি জয়িতা পুরস্কার পেয়েছেন।

শনিবার (৯ ডিসেম্বর) বেলা ১১টার দিকে জেলা প্রশাসন কার্যালয়ে বেগম রোকেয়া দিবস উদযাপন ও ‘জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ’ শীর্ষক কার্যক্রম উপলক্ষে আলোচনা সভা ও জয়িতাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে নাজমা খানমের হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন জেলা প্রশাসক নিজাম উদ্দীন আহাম্মেদ। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন শরীয়তপুর পৌরসভার মেয়র এডভোকেট পারভেজ রহমান (জন), পুলিশ সুপার মুহাম্মদ মাহবুবুল আলম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সাদিয়া জেরিন, জাতীয় মহিলা সংস্থা শরীয়তপুরের চেয়ারম্যান রওশন আরা বেগম, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র প্রমুখ। শরীয়তপুর মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপপরিচালক রাফিয়া ইকবাল অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মাহবুবুল আলম বলেন, ‘শরীয়তপুরের এখনো অনেক বাল্যবিবাহ হচ্ছে। যা ভবিষ্যৎ অনেকের জয়িতা হিসেবে গড়ে ওঠার পথে প্রতিবন্ধক। তাই বাল্যবিবাহ বন্ধে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন।’

এক প্রতিক্রিয়ায় সফল জননী নাজমা খানম বলেন, ‘আমি আমার ছয় সন্তানকে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করেছি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের মত দেশের শ্রেষ্ঠ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আমার সন্তানেরা পড়াশুনা করেছে। ২০০৩ সালে আমার স্বামী মারা যান। তখন আমার বড় ছেলে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ে। বাকি সন্তানদের মানুষ করতে আমার বহু কষ্ট করতে হয়েছে। কিন্তু তাদের পড়াশুনা বন্ধ করার কথা একবারও চিন্তা করিনি।’

‘নারীর জন্য বিনিয়োগ সহিংসতা প্রতিরোধ’ স্লোগানে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বেগম রোকেয়া দিবস উপলক্ষে এ আয়োজন করে জেলার মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর। সামাজিক বিভিন্ন বাধাবিপত্তি পেরিয়ে দীর্ঘ সংগ্রামের মধ্য দিয়ে এগিয়ে যাওয়া নারীদের স্বীকৃতসরূপ এ পুরস্কার দেওয়া হয়। মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তর এবং মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে দেশব্যাপী এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

আরও পড়ুন আপনার মতামত লিখুন

© Copyright -Bangla Runner 2024 | All Right Reserved |

Design & Developed By Web Master Shawon