Bangla Runner

ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ০৭ ডিসেম্বর, ২০২৩ | বাংলা

শিরোনাম

শীতকালীন ত্বকের যত্নে পাঁচ পরামর্শ কম্পিউটারের কিছু শর্টকাট ভালো চাইলে সূর্য ওঠার সঙ্গে সঙ্গে দৌড়াতে শুরু করুন বিশ্বের বৃহত্তম সাত স্টেডিয়াম যুদ্ধ লাগলেই কেন বাড়ে স্বর্ণের দাম? তথ্যপঞ্জী লেখার নিয়ম বিতর্কের বিষয় ব্যাংক বিতর্কে শব্দ ব্যবহারে সচেতন হতে হবে একজন ভাল লেখক হতে চাইলে এক নজরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
Home / ক্যাম্পাস

ডাকসুর টাকা দিয়ে সাইকেল কিনতে চেয়েছিলেন ভিপি নুর

নিজস্ব প্রতিবেদক
সোমবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ Print


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) মেয়াদ শেষ হতে আর মাত্র দেড় মাস বাকি। ১০ মাসেও ডাকসু ভিপির জন্য বরাদ্দকৃত ৫ লাখ টাকার এক টাকাও তুলতে পারেননি ভিপি নুরুল হক নুর। তবে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ  তিনি ব্যক্তিগত কাজের জন্য ডাকসুর টাকা তুলতে চেয়েছিলেন। 

জানা যায়, ভিপি নুরুল হক তিনটি চিঠিতে মোট ৪০ হাজার টাকা চেয়ে আবেদন করেছিলেন। এর মধ্যে কবি সুফিয়া কামাল হলের ছাত্রীদের র্যাগ ডে উদযাপনের জন্য ১০ হাজার, শামসুন নাহার হলের একজন অ্যাথলেটকে একটি রেসিং সাইকেল কেনার জন্য ১০ হাজার এবং একটি শিক্ষাসফরে বরাদ্দের জন্য আরও ২০ হাজার টাকা চেয়েছিলেন। তিনি যে যে খ্যাতে টাকা চেয়েছিলেন এগুলো তার একান্ত ব্যক্তিগত। সাধারনত ডাকসুর টাকা ব্যয় করা হয় সামগ্রিক শিক্ষার্থীদের কাজে।

ডাকসু ভিপির অভিযোগ, বরাদ্দকৃত অর্থ উত্তোলনে তিনি আবেদন করেছিলেন। কিন্তু ছাত্রলীগের প্যানেল থেকে নির্বাচিত ডাকসুর সাধারণ সম্পাদক (জিএস) গোলাম রাব্বানী ও সহসাধারণ সম্পাদক (এজিএস) সাদ্দাম হোসেনের ‘অদৃশ্য প্রভাবের’ কারণে টাকা তোলা সম্ভব হয়নি। তবে নুরের অভিযোগ মানতে নারাজ জিএস ও এজিএস।

এ বিষয়ে ডাকসুর কোষাধ্যক্ষের দায়িত্বে থাকা ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম বলেন, নুরুল হক টাকা চেয়ে পাননি—এমন ঘটনা তার জানা নেই। এক ছাত্রীকে (অ্যাথলেটও) রেসিং সাইকেল কিনে দিতে যে টাকা চেয়েছিলেন নুর, তা তার ‘ব্যক্তিগত বিষয়’। এ কারণে তা দেয়া হয়নি। তিনি বলেন, ডাকসুর টাকা শিক্ষার্থীদের সামগ্রিক কল্যাণে ব্যয় হবে, ব্যক্তিগতভাবে 

আরও পড়ুন আপনার মতামত লিখুন

© Copyright -Bangla Runner 2021 | All Right Reserved |

Design & Developed By Web Master Shawon