Bangla Runner

ঢাকা , রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২ | বাংলা

শিরোনাম

ট্যাক্শের গান গাই নজরুলের দর্শন ও চেতনা সব শ্রেণির মানুষকে অনুপ্রাণিত করে ঢাবিতে আগামীকাল পালিত হবে জাতীয় কবির ৪৬তম মৃত্যুবার্ষিকী একুশে ডিবেটিং ক্লাবের নেতৃত্বে সাফিন ও আলিফ মুজিব মুজিব ডাক উঠেছে ঢাবিতে স্নাতক ১ম বর্ষের ক্লাস শুরু ৭ সেপ্টেম্বর ঢাবির জসীমউদ্দীন হল ডিবেটিং ক্লাবের নতুন কমিটি ঢাবি শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে চিকিৎসককে মারধরের অভিযোগ ঢাবিতে বঙ্গমাতা’র উপর আন্তর্জাতিক সম্মেলন উদ্বোধন আগামী ৭ আগস্ট যৌন নির্যাতনের অভিযোগে ঢাবি শিক্ষার্থী বহিস্কার
Home / ভ্রমণ বিলাস

প্রকৃতিপ্রেমী যুগলের জীবন শুরু প্রকৃতির সান্নিধ্যে

সীতাকুণ্ডে ঝর্ণার কোলে গায়ে হলুদ

রানার ডেস্ক
শনিবার, ২০ নভেম্বর, ২০২১ Print

ঝর্ণার কোলে বর-কনের গায়ে হলুদ। ছবি: টিম হ্যাপি ক্লিকিং 


দু’জন দুই ধারার মানুষ, জীবনের গল্পগুলোও আলাদা দু’জনের। কিন্তু দু’জনের জীবন একসাথে মিললো যে রেখায়, তার নাম ভালোবাসা। দু’জনের প্রতি ভালোবাসা তো আছেই সেই ভালোবাসা দ্বিগুণ হয়েছে যখন দু’জনের প্রেম মিলেছে প্রকৃতিপ্রেমের সাথে। নতুন জীবনের শুরুটা তাই প্রকৃতির মাঝেই হলো সজীব ও রিজভীর। প্রিয় বন্ধু, প্রিয় সব মানুষেরা মিলে স্বাক্ষী হয়ে রইলো বিশেষ এই আয়োজনের পুরো দিনের ছবি স্মৃতিবন্দী করতে সাথে ছিল আলোকচিত্র প্রতিষ্ঠান হ্যাপি ক্লিকিং।

প্ল্যানিংয়ের শুরুতেই জায়গা বেছে নেয়া বড় একটা চ্যালেঞ্জ ছিলো। একে তো পরিবেশ যাতে কোনোভাবেই ক্ষতিগ্রস্থ না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে, অন্যদিকে পাহাড় আর ঝরর্ণার প্রতি ভালোবাসা বারবার সেদিকেই টানে। সবদিক বিবেচনা করে হলুদের স্থান ঠিক করা হলো সীতাকুণ্ডের কমলদহ রেঞ্জের রূপসী ঝর্ণা। সেই উদ্যেশেই রিজভী-সজীব আর পুরো টিম বাসে চেপে বসলো মিশন ঝর্ণায় হলুদবিলাসের লক্ষ্যে।

ভোরের আলো ফোটার আগেই বাস সবাইকে নামিয়ে দিলো সীতাকুণ্ডে। সবাই ঠিকঠাক পৌঁছালেও আবহাওয়া যেন বেঁকে বসলো বিয়েতে উপস্থিত কতিপয় অতিথির মতো যাদের কাজই থাকে ঝামেলা করা। দিন বাড়ে, আকাশের গোমড়া মুখের চাইতেও বেশি ঘনঘটা যেন সবার মুখে! এতো দূরে এসেও কি বাতিল হবে সব আয়োজন? মনের মিনতি হয়তো আকাশ শুনতে পেয়েছিলো, তাই দেরি করে হলেও অনুমতি মিললো, সূর্যমামা দেখা দিলো। সবাই মিলে হৈহৈ করতে করতে পা বাড়ালো ঝর্ণার পথে।

বৃষ্টি দিনের শুরুতে মন খারাপের কারণ হয়েছে ঠিকই, কিন্তু ঝর্ণার কাছাকাছি যেতেই মন খারাপ একটু একটু করে উধাও হয়ে গেলো। বৃষ্টির কারণে বেশ পানি ছিল ঝরর্ণায়, সেই সাথে রবিবার হওয়ায় লোকের আনাগোনাও একেবারে শূন্য বলা যায়!

শুরু হলো হলুদের প্রস্তুতি। কনে সাজাতে লেগে পড়লো রিজভীর বন্ধুরা আর কয়েকজন স্টেজ সাজানোর দায়িত্বে। কিছুক্ষণের মধ্যেই সাজসাজ রবে জমে উঠলো হলুদ আসর। হলুদের আয়োজন শুরু হলো হলুদ মেখেই। রূপসীর কোলে বর-কনের মুখ ভরে উঠলো হলুদের আভায়। হলুদের পর বর-কনের স্নানের পালা, আর সেই হলুদস্নান হলো সবাই মিলে ঝর্ণাধারায়। সবার আনন্দমাখা মুখ আর ভালোবাসায় মাখা সময়ে চললো হলুদিয়া ঝর্ণাযাপন।

এরপর রং মাখামাখি, সবাই নেচেগেয়ে উদযাপন করলো প্রকৃতিপ্রেমী দুজন মানুষের এক হওয়া! প্রকৃতির নিরন্তর এই সৌন্দর্য্য ছুঁয়ে থাকুক এই দুটি প্রাণে আর ভালোবাসা গাড়ি চলুক সবসময়- এই কামনাতে সবার হাসি আর আড্ডায় সূর্য নামার সময় হলো, এলো ফেরার পালা। 

প্রকৃতিকে ভালোবাসা থেকেই এই দুজনের ঝর্ণায় হলুদ বিলাস দিয়ে জীবন শুরু।  তাই ফেরার পথেও সবাই ফিরলো প্রকৃতিকে আপন রূপে রেখে। নিজেদের সব আবর্জনা ও হলুদের সব সরঞ্জাম গুছিয়েই ফেরার যাত্রা করলো সবাই।

আরও পড়ুন আপনার মতামত লিখুন

© Copyright -Bangla Runner 2021 | All Right Reserved |

Design & Developed By Web Master Shawon